ঢাকা বুধবার,২১,আগস্ট, ২০১৯

একদিনে হাসপাতালে ৩৯০ ডেঙ্গু রোগী

image

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজধানীতে মশার উৎপাত ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এডিস মশার প্রজনন বেড়ে যাওয়ায় রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা আশঙ্কাজনকহারে বেড়েছে।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের দৈনিক প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ৩৭৪ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া ঢাকার বাইরে ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন রোগী। সবমিলিয়ে ভর্তি হয়েছেন ৩৯০ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী।

প্রতিবেদনটিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮ থেকে শুক্রবার সকাল ৮ পর্যন্ত এই ২৪ ঘণ্টার হিসাব তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, মোট ৩৯০ জন রোগীর মধ্যে ঢাকা শহরের বাইরে ঢাকা বিভাগের জেলাশহরে ১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৩ জন ও খুলনা বিভাগে ২ জন রোগী ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

ঢাকা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৩৭৪ জন। এদের মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ১৩৬ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতাল ৮ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল ২২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এছাড়াও হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৯ জন, বারডেম হাসপাতালে ৪ জন, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ৩৭ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪১ জন, পিলখানা বিজিবি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩ জন রোগী।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ঢাকা শহরের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে নতুনভাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ১১৪ জন রোগী। এদের মধ্যে ধানমন্ডি ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১১ জন, স্কয়ার হাসপাতালে ৯ জন, সেন্ট্রাল হাসপাতালে ৩০ জন, কাকরাইল ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ২৪ জন রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন। এছাড়াও ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৮ জন, সালাউদ্দিন হাসপাতালে ১৭ জন, পপুলার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন।

রিপোর্টটিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সর্বমোট মৃত্যুর সংখ্যা দেখানো হয় ৮ জন। এছাড়া চারটি সরকারি হাসপাতাল এবং ২৯টি বেসরকারি হাসপাতালে নতুন কোনো রোগী ভর্তি হয়নি বলেও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।