গরম সহ্য করতে না পেরে আন্দোলনে রাবি শিক্ষার্থীরা

image

রাবি প্রতিনিধি- 

'এসো হে বৈশাখ, এসো এসো, তাপসনিশ্বাসবায়ে মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে, বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক। যাক পুরাতন স্মৃতি,   যাক ভুলে-যাওয়া গীতি,' শান্তিনিকেতনে বসে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এমন গানের রচনা, আর তাঁর সুরে বৈশাখ কে বরণ করে নিলেও বৈশাখের তীব্র তাপদাহে ওষ্ঠাগত হয়ে উঠেছে নগর জীবন।

তীব্র রোদ, অসহনীয় গরম বাতাসে অস্বস্তির শেষ সীমানায় নাগরিক জীবন। ঘরে-বাইরে স্বস্তি মিলছেনা কোথাও। তাইতো প্যান্টের উপর লুঙ্গি পরে অভিনব সাজে রাস্তায় নেমেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিক্ষার্থীরা। বাদ যায়নি ছাত্রীরাও। এ যেন গরমের বিরুদ্ধে নিষ্ফলা এক আন্দোলন। 

সোমবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় টুকিটাকি চত্বর থেকে লুঙ্গি পরে শিক্ষার্থীরা এমনি একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে গন্তব্য করে পশ্চিম পাড়াকে । এসময় শিক্ষার্থীরা 'গরমের সঙ্গী, আমাদের লুঙ্গি' ইত্যাদি শ্লোগান দিতে থাকে। ছাত্রীদের অনেকেই লুঙ্গি না পেয়ে ওড়নাকে লুঙ্গির মতো করে পরেও শামিল হয় তাদের সাথে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রোববার রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৯.৯ ডিগ্রী সেলসিয়াস। যা আগের দিন শনিবার থেকে সাড়ে ৪ ডিগ্রী বেশি এবং  যা ছিল সারা দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। আজ সকালে তা এসে দাঁড়ায়  ৪০ ডিগ্রী। 

অসহ্য গরমের অনুভূতি জানাতে গিয়ে সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থী অভি আহম্মেদ বলেন, গরমের জ্বালায় কোথাও টিকতে পারছিনা। হলের ট্যাপের পানি তো হাতই দেয়া যাচ্ছে না। গোসল করেও স্বস্তি পাচ্ছি না। ক্লাসে ও রুমে কোথাও শান্তি নেই। সবমিলিয়ে দূর্ভোগের মধ্যে দিয়ে দিন যাচ্ছে।  

আন্দোলন৭১/রাবি-মিশু/এইচএম