গী দ্য মপাসাঁর মৃত্যুবার্ষিকী আজ

image

ডেস্ক নিউজ- 

তিনি একজন বিখ্যাত ফরাসি কবি, গল্পকার ও ঔপন্যাসিক। বিশ্বসাহিত্যের সেরা ছোটগল্প লেখকদের নাম নিতে গেলে একেবারেই প্রথম সারিতেই তার নামটি আসে। তাকে আধুনিক ছোট গল্পের জনক বলা হয়। তিনি ফরাসি ছোটগল্পকার গী দ্য মপাসাঁ। আজ ৬ জুলাই, গী দ্য মপাসাঁর মৃত্যুবার্ষিকী। 

জন্ম ও পরিচয়:

গী দ্য মপাসাঁ ১৮৫০ সালের ৫ আগষ্ট ফ্রান্সের নরম্যান্ডিতে জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পিতার নাম গুস্তাভ দ্য মোপাসাঁ এবং মায়ের নাম লরা লি পয়টিভিন। তিনি স্বল্পভাষী লাজুক স্বভাবের ছিলেন। মায়ের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য অনেকখানিই প্রভাব ফেলেছিল তার উপর। তাঁর মা দুরারোগ্য ব্যাধি ম্যালানকোলিয়ায় ভুগতেন ।

শিক্ষাজীবন:

মধ্যবিত্ত ঘরের সন্তান বলে লেখাপড়ার সুযোগ পেয়েছিলেন কিছুটা।১৯৬৭ সালে তিনি একটি নিম্ন মাধ্যমিক স্কুলে ভর্তি হন। ১৮৬৯ সালে মোপাসঁ প্যারিসে আইন বিষয়ে লেখাপড়া শুরু করেন।

কর্মজীবন:

শীঘ্রই তাঁকে পড়াশোনা ছেড়ে ফরাসি-প্রুশীয় যুদ্ধের কারণে সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে হয় । এরপর ১৮৭২ থেকে ১৮৮০ সাল পর্যন্ত তিনি সিভিল সার্ভেন্ট হিসেবে ফ্রান্সের নৌ মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কাজ করেন।

সাহিত্যজীবন:

স্কুলজীবন থেকেই পারিবারিক বন্ধু গুস্তাভ ফ্লবেয়ারের সাথে পরিচয় হয়। পরবর্তীতে গুস্তাভ ফ্লবেয়ার, এমিল জোলা, আলফস দোঁদে-দের উত্তরসূরী হিসেবে ১৮৮০ সালে একটি কাব্যগ্রন্থ(De Ver) প্রকাশের মধ্যে দিয়ে তাঁর সাহিত্যজগতে পদার্পণ। প্রথম কাব্যগ্রন্থে খুব বেশি জনপ্রিয়তা পাননি। এসময় প্যারিস তরুণ সাহিত্যিকদল একটি সাহিত্যিকদল বের করে একটি সাহিত্যিক সঙ্কলন। নাম Less Sovress de Medan। এখানে মোপাসাঁর প্রথম বড় গল্প 'ব্যুল দ্য সুইফ' (Boule de Suif)- ফ্রাঙ্কো-প্রুশিয়ান যুদ্ধের পটভুমিতে একজন বেশ্যার কাহিনী। ১৮৮৩ সালে আরেকটি বিখ্যাত গল্প প্রকাশিত হল, মাদমোয়াজেল ফিফি। এরপর প্রথম উপন্যাস Un-rie। উপন্যাসটি সরকারি রোষানলের শিকার হল। ১৮৮৫ সালে রচনা করেন বিখ্যাত উপন্যাস "বেল আমি"। বলা হয়ে থাকে, ছোটগল্পকার হিসেবে যতটুকু পারদর্শী ছিলেন, উপন্যাসে তিনি ততটা ঋজুগতি ধরে রাখতে পারেননি। মাত্র এক দশক সাহিত্যচর্চার সুযোগ পান মোপাসঁ, এই সংক্ষিপ্ত সময়ে তিনি তিনশ' ছোট গল্প, ছয়টি উপন্যাস, বেশ কিছু কবিতা এবং তিনটি ভ্রমণকাহিনী লেখেন। একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির নেকলেস গল্পটিও তার লেখা।

মৃত্যু:

দুর্ভাগ্যবশত তারুণ্যের শুরুতেই তিনি সিফিলিস রোগে আক্রান্ত হন, যা তাঁকে ধীরে ধীরে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তোলে। শেষে মারাত্মক মানসিক বৈকল্যের শিকার হয়ে ১৮৯২ সালের ২ জানুয়ারি কন্ঠনালী কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে প্যারিসের একটি প্রাইভেট অ্যাসাইলামে ভর্তি করা হয়, এবং সেখানেই পরের বছর অর্থাৎ ১৮৯৩ সালের ৬ই জুলাই, মাত্র ৪৩ বছর বয়সে, মৃত্যুবরণ করেন এই প্রতিভাবান সাহিত্যিক।

(তথ্যসুত্র: উইকিপিডিয়া ) 

আন্দোলন৭১/এডি