ঢাকা সোমবার,২৩,সেপ্টেম্বর, ২০১৯

থানায় না হওয়ায় আদালতে মামলা

image

নেত্রকোনা প্রতিনিধি-

নেত্রকোনার সদরে মামলার বাদির ঘরে লুটপাট শেষে বাড়িতে আগুন দেয়ার অভিযোগে প্রতিপক্ষ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) দিনগত ভোর রাতে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার ছয়দিন পেরিয়ে গেলেও থানায় মামলা না নেয়ায় আদালতে মামলাটি দায়ের করে ভুক্তভোগী পরিবার।

আদালতে দায়ের করা মামলায় আসামিরা হলেন- জহির, জাকির, মামুন, মৌজ আলী, ওমর ফারুক ও রাতিন। তারা প্রত্যেকে সদরের ঠাকুরাকোণা ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের বাসিন্দা।


তাদের বিরুদ্ধে নেত্রকোনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এ মামলাটি দায়ের করেন, পাহাড়পুর গ্রামের মৃত কিতাব আলীর মেয়ে কলেজছাত্রী নুসরাত আক্তার।

তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে আসামি পক্ষের লোকজন ভিটেমাটি দখলের প্রচেষ্টায় তাদেরকে বিভিন্ন কৌশলে অত্যাচার নির্যাতন চালিয়ে আসছেন। যার কারণে কারণে অকারণে ঝগড়া বাঁধিয়ে দাঙ্গাহাঙ্গামা করতো।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আসামিরা কয়েকজন মিলে সোমবার (২৬ আগস্ট) সকালে বাড়ির গাছ থেকে ডাল কেটে নিয়ে যেতে শুরু করে।

পরবর্তীতে তাদেরকে বাধা দিলে নুসরাতসহ তার মা বৃদ্ধা আনোয়ারা, ভাই আরব আলীকে দিবালোকে কুপিয়ে জখম করে আসামিরা। স্থানীয়দের সহযোগিতায় নুসরাতের পরিবারের সদস্যদের চিকিৎসায় হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে সপ্তাহ সময় চিকিৎসা নেন তারা।

পরে এ ঘটনায় নুসরাতের ভাই আরব আলী প্রতিপক্ষের ছয়জনকে আসামি করে নেত্রকোনা মডেল থানায় মামলা (মামলা নম্বর-৪৮) দায়ের করে। এবং মামলার জেরেই পরবর্তীতে নুসরাতদের বাড়িঘরে লুটপাট ও অগ্নি সংযোগ করা হয়েছে।

এই লুটপাট ও অগ্নি সংযোগের ঘটনায় তাদের স্বর্ণালংকার ও নগদ অর্থ ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত মামলায় তুলে ধরা হয়েছে বলেও জানান নুসরাত এবং তার পরিবারের সদস্যরা।

তবে এই অসহায় পরিবারের নিরাপত্তায় দায়ের করতে চাওয়া মামলাটি মডেল থানায় না নেয়ার ব্যপারে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

আন্দোলন৭১/রাজিব সূত্রধর/কাজী