বিয়ের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্বা

image

পটুয়াখালী প্রতিনিধি-

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগে শাহিন হাওলাদার (২২) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৫ মে) সকালে উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের মধুখালী বাঁধঘাট বাজার থেকে তাকে রাঙ্গাবালী থানা পুলিশ শাহিনকে গ্রেফতার করে।

গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের মধুখালী গ্রামে ষষ্ঠ শ্রেনীর ওই ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনায় চলতি বছরের ১৬ এপ্রিল পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে প্রতিবেশি শাহিন হাওলাদারকে আসামি করে একটি নালিশি মামলা দায়ের করেন। এরপর আদালত রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গন্য করে মামলা রুজুর নির্দেশ প্রদান করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বাদীর মেয়ে বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের তক্তাবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। শাহিন দীর্ঘদিন ধরে তার মেয়েকে উত্যক্ত করতো এবং প্রেমের প্রস্তাব দিত। এ প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর রাতে কৌশলে মধুখালী গ্রামে বাদীর ঘরে প্রবেশ করে তার মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে বিষয়টি আসামির বাবা-মাকে জানালে তারা বাদীর মেয়েকে পুত্রবধূ করার আশ্বাস দেন। এরপরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এতে বাদীর মেয়ে ৪ মাস ৯ দিনের অন্তঃসত্ত্বা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে ওই মেয়েকে বিয়ে না করে সে নিজ বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী আহম্মেদ জানান, আসামি শাহিনকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন আছে।

আন্দোলন৭১/গোফরান/এস